নগদ একাউন্ট খোলার পদ্ধতি

 

Nagad Account


দেশে মোবাইলে টাকা লেনদেন এর জন্য পরিচিত একটি নাম হচ্ছে (Nagad) নগদ। বাংলাদেশ ডাক বিভাগ কতৃক পরিচালিত এই অর্থ লেনদেন মূলক সেবাটি দিন দিন অনেক জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে।

এর পিছনে মূলত নগদ এর গ্রাহক সেবা এবং কম খরচে ক্যাশ আউট সুবিধাকে অন্যতম কারণ ধরা হয়ে থাকে। চলুন কথা না বাড়িয়ে নগদ এর একাউন্ট খোলা এবং এর সাথে প্রয়োজনিয় কিছু তথ্য জেনে নেই...



🌀 নগদ একাউন্ট খোলার পদ্ধতি -


একাউন্ট খুলতে প্রথমে আপনার

স্মার্টফোন বা বটম ফোন থেকে ডায়াল করুন *১৬৭# ওকে। 

তারপর আপনার স্কীনে লেখা আসবে ৪ ডিজিটের একটি পিন নাম্বার দেওয়ার জন্য,  পিন নাম্বারটি দিয়ে Send অপশন এ ক্লিক করবেন।


এর পরে আবার লেখা আসবে Confirm new pin মানে আগে যে ৪ ডিজিটের পিনটি দিয়েছেন তা আবার দেওয়ার জন্য, এবার ও পিন দিয়ে send অপশন এ ক্লিক করুন।


তারপরে এইরকম একটি লেখা আসবে স্কীনে - 

do you want a profit bearing account? 

Yes no

এর মানে আপনি কি আপনার একাউন্ট এর জমা থাকা টাকার উপরে নিদিষ্ট হারে প্রফিট বা সুদ পেতে চান, পেতে চাইলে yes ক্লিক করুন, আর না পেতে চাইলে No সিলেক্ট করুন। 


ব্যাস হয়ে গেলো আপনার নগদ একাউন্ট খোলা, এখন আপনার বটম ফোন হলে *১৬৭# ওকে ডায়াল করলেই আপনি আপনার নগদ একাউন্ট এর ডুকে যাবেন।


আর স্মার্টফোন হলে আপনি প্লে স্টোর থেকে নগদ অ্যাপস টি নামিয়ে নিতে পারেন। এ ক্ষেত্রে  ইমেলই এর জায়গায় আপনার নাম্বার,  আর পাসওয়ার্ড এর জায়গায় আপনি ৪ ডিজিটের যে পাসওয়ার্ডটি দিয়েছিলেন তা দিয়ে লগ ইন করতে পারবেন।



🌀 নগদ একাউন্ট এর সুবিধা - 


নগদ এর একাউন্ট কিভাবে তৈরি করবেন তা তো জেনে গেলেন এবার চলুন নগদ এর কিছু সুবিধা সম্পর্কে জানি...


- নগদ অ্যাপ থেকে ক্যাশ আউট চার্জ প্রতি হাজারে মাত্র ১১ টাকা,


আর  বাটন ফোন থেকে প্রতি হাজারে ১৫ টাকা ক্যাশ আউট চার্জ ভ্যাট সহ। এতো কম ক্যাশআউট বর্তমানে বাংলাদেশে নগদ ছাড়া অন্য কোনো ইন্টারনেট ব্যাংকি সেবা দিচ্ছে নাহ।


- নগদে রয়েছে ইন্টারনেট ব্যাংকি এর সুবিধা ও। এতে আপনি নিদিষ্ট কিছু ব্যাংক থেকে নগদে টাকা ক্যাশ ইন করতে পারবেন কোনো চার্জ ছাড়াই।


- আপনি চাইলে আপনার ব্যাংক এর কার্ড থেকেও নগদে টাকা ডুকাতে পারবেন।


- অন্য সব মোবাইল ব্যাংকি সেবার মতো নগদে ও রয়েছে মোবাইল রিচার্জ করার সুবিধা। নগদ থেকে আপনি সহজেই মোবাইল এ টাকা রিচার্জ করতে পারবেন। 


- নগদের রয়েছে মুনাফা ব্যবস্হা বা সুদ এর ব্যবস্হা !  আপনি যদি চান তাহলে নগদ আপনাকে আপনার একাউন্টে জমা থাকা টাকার উপরে বছরে নিদিষ্ট হারে ইন্টারেস্ট বা সুদ প্রধান করবে।


- তাছাড়া নগদ থেকে বিভিন্ন ধরণের বিল ও পরিশোধ করা যায় যেমন ইন্টারনেট বিল,  বিদ্যুৎ বিল, পানি বিল,  গ্যাস বিল ইত্যাদি।


- আপনি চাইলে নগদ থেকে বিভিন্ন দাতব্য সংস্থায় ডোনেট ও করতে পারবেন। 



🌀 নগদ একাউন্ট দেখার নিয়ম -


নগদে আপনার একাউন্ট এর ব্যালান্স চেক করতে ডায়াল করুন

*১৬৭# ওকে, তারপর মাই নগদ সিলেক্ট করুন, এর পরে ব্যালান্স ইনকুয়েরি সিলেক্ট করলেই আপনার একাউন্ট এ কতো টাকা আছে তা দেখতে পারবেন।

 

*167# ok

-  my nagad 

-  balance Inquiry.. 


🌀 নগদ একাউন্ট এর অসুবিধা -


নগদে যেমন ভুরিভুরি সুবিধা রয়েছে তেমনি কিছু অসুবিধা ও রয়েছে তার মধ্যে অন্যতম কিছু সমস্যা হচ্ছে -


নগদের এজেন্ট বা ক্যাশআউট পয়েন্ট এখনে সব জায়গায়/ সব এলাকায় পাওয়া যায় নাহ। তাই প্রয়োজনে নগদ থেকে ক্যাশআউট করতে অনেক জায়গায় বেশ কষ্ট করতে হয়।


দেশের অন্য মোবাইল ব্যাংকি সেবা যেমন বিকাশ এর পেমেন্ট গেটওয়ে আপনি যেকোনো সুপারমল, শপ, রেস্টুরেন্ট এ পেয়ে যাবেন কিন্তু নগদ এক্ষেত্রে অনেক পিছিয়ে আছে নগদ দিয়ে পেমেন্ট করার সুবিধা অনেক জায়গাতেই এখনো মিসিং।





 🌀 নগদ হেল্প লাইন -


অনেক ক্ষেত্রে নগদ ব্যবহারে অনেক ঝামেলা পোহাতে হয়, যেহেতু বেশির ভাগ মানুষ বিকাশ ব্যবহার করে আসছে তাই অনেক কিছুই বুঝে উঠতে পারেন না এক্ষেত্রে নগদ এর হেল্পলাইনে কল দিন।

নগদ এর হেল্পলাইনের নাম্বার - 16167

নগদ হেল্পলাইনের আরো একটি নাম্বার -

096 096 16167


অথবা ইমেইল এ লিখে জানাতে পারেন আপনার সমস্যাগুলো। নগদ এর ইমেল এড্রেস -

Email - Info@nagad.com.bd


বিশেষ প্রয়োজন হলে চলে যেতে পারেন নগদের অফিসে। নগদের অফিসের ঠিকানা - 


ডেলটা দোহালিয়া টাওয়ার, ৩৬ কামাল আর্তাতুক এভিনিউ, বনানী ঢাকা।


আর্টিকেল যদি ভালো লেগে থাকে তাহলে আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করতে ভুলবেন নাহ।

এ রকম আরো প্রয়োজনিয় আর্টিকেল পড়তে টেকচাচা এর সাথেই থাকুন।

ধন্যবাদ সবাইকে।


Previous Post
Next Post
Related Posts